Wednesday, December 7, 2022
spot_img
spot_img
Homeখবররাজনৈতিক নেতা- নেত্রীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রতাপ চুনারী

রাজনৈতিক নেতা- নেত্রীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রতাপ চুনারী

রাজনৈতিক নেতা- নেত্রীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন এস এস হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের মুর্শিদাবাদ জেলা কমিটির সভাপতি প্রতাপ চুনারী। এদিন প্রতাপ বাবু বলেন, অনেক নেতাদের ক্যামেরার সামনে দেখা যায় ব্রাইট দিতে, ব্রাইট দিয়ে বলেন মুখে মাস্ক পড়ুন, সোশ্যাল ডিসটেন্স মানুন এবং স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন।

রাজনৈতিক নেতা- নেত্রীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রতাপ চুনারী

সেই সমস্ত নেতাদের উদ্দেশ্যে বলছি, শুধুমাত্র মিটিং-মিছিলে যাবে না তাদেরকেই করোনাভাইরাস আক্রমণ করবে ? নাকি আপনারা যখন মিটিং মিছিল করেন, মহামারী করোনাভাইরাসের জন্য আলাদা কোন ব্যবস্থা করেন ? আপনারা যখন মিটিং করেন, তখন না থাকে সোশ্যাল ডিসটেন্স, না থাকে কারোর মুখে মাস্ক, আজকাল আপনাদের মুখে মাস্ক দেখা যায় না।

জনস্বার্থে প্রচারিত

রাজনৈতিক নেতা- নেত্রীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রতাপ চুনারী

ডিসটেন্স যদি না মানা হয়, মুখে যদি মাস্ক না লাগানো হয়, তাহলে স্যানিটাইজার ব্যবহার করে কি হবে ? শুধুমাত্র স্যানিটাইজার ব্যবহার করার নিদান দিলেই আপনাদের ছুটি। সারাদিন ধরে প্রচার চালাচ্ছেন করোনা ভাইরাসকে দূরে রাখতে হলে সরকারি নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে। কিন্তু সরকারি নির্দেশিকা মানতে দেখা যাচ্ছে না কোন নেতাদেরই। তবে শুধুমাত্র কি আমজনতার জন্য করোনাভাইরাস ? নাকি রাজনৈতিক মঞ্চ বা মঞ্চের আশেপাশে থাকলে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে রক্ষা পাওয়া যায় ? অফিস-আদালতে মুখে মাস্ক ছাড়া কোনো কাজ হচ্ছেনা কিন্তু পার্টির মিটিংএ মাস্ক ছাড়াই হুড়োহুড়ি।

More  News- চকলেট ছিটিয়ে রোড শো করলেন বহরমপুরের সাংসদ তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।

আত্মহত্যা নিয়ন্ত্রণ করাই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য, রইল সিনেমা, দেখে নিন।

দেশে নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহদের সিন্ডিকেট চলছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

জনসাধারণকে যে নির্দেশ দেবেন, সেই নির্দেশ আপনাদের সকলকে মানা উচিত। জনসাধারণের প্রতি যে নির্দেশ আর নেতাদের প্রতি যে নির্দেশ, সরকারের তরফ থেকে আলাদা ভাবে কিছু করা নেই। আইন সকলের জন্য সমান।তাই বলছি, ক্যামেরার সামনে এটা কড়ুন, সেটা পড়ুন, এটা ব্যবহার করুন, সেটা ব্যবহার করুন, নির্দেশ দিয়েই আপনি মঞ্চে উঠে পড়লেন মুখে মাস্ক ছাড়াই এটা কি ঠিক ? জন সাধারণের সঙ্গে সঙ্গে আপনারাও সতর্ক হোন। যে কোন অজুহাত দিয়ে জনগণকে নাচানো বন্ধ করুন। আজ রেশনে গেলে করোনার ভয়, বিডিও অফিসে গেলে করোনার ভয়, থানায় গেলে করোনার ভয়, রাস্তায় চলাফেরা করলে করোনার ভয়, আত্মীয়স্বজনের বাড়ি গেলে করোনার ভয়, শুধুমাত্র পার্টির মিটিংএ বা মিছিলে গেলে কোন করোনার ভয় নেই, এটাকি সম্ভব ?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments