Thursday, December 8, 2022
spot_img
spot_img
Homeখবরফের প্রকাশ্যে এলো তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল হুমায়ুন কবীরের বিতর্কিত বক্তব্যের পর।

ফের প্রকাশ্যে এলো তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল হুমায়ুন কবীরের বিতর্কিত বক্তব্যের পর।

ফের প্রকাশ্যে এলো তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল হুমায়ুন কবীরের বিতর্কিত বক্তব্যের পর।

 

মুর্শিদাবাদ জেলার ভরতপুর বিধানসভা কেন্দ্রের নবনির্বাচিত বিধায়ক হুমায়ুন কবির ভারতপুর বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সলারে একটি তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয় উদ্বোধন করবার সময় তার বক্তৃতার মাধ্যমে তিনি বলেছিলেন এক সপ্তার মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেসে বড়সড় রদবদল আনা হবে সারা রাজ্যের পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ জেলাতে।

হুমায়ুন কবির তার বক্তব্যের মাধ্যমে আরও জানান মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সহ পুরো তৃণমূল কংগ্রেসের রদবদল করা হবে তিনি জানান তারা সেখানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় থাকবেন মুর্শিদাবাদ জেলার রাজনীতির মানচিত্রে,তিনি আরো জানান যেই তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে এদিন তিনি উদ্বোধন করলেন তিনি কারোর সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই সেই তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে বিধায়কের কার্যালয় হিসেবে চালু রাখবেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আবু তাহের খান জানান হুমায়ুন কবির শুধু জেলায় বলেনি গোটা রাজ্যে বলেছে রদবদল হবে তার বিশ্বস্ত সূত্রে কোন খবর থাকতে পারে তিনি বলেছেন আমি কি বলব বলুন। মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের সভাপতি আবু তাহের খান এদিন হুমায়ুন কবিরকে কটাক্ষ করে বলেন তিনি পরিবর্তনের মালিক তাই তিনি বলেছেন।

এদিন সাংবাদিকরা প্রশ্ন করে মুর্শিদাবাদ জেলায় 20টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে 18টি কেন্দ্রে আপনার নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেস জয়লাভ করেছে কিন্তু সেই আপনার নেতৃত্বকে চ্যালেঞ্জ করা হচ্ছে এই প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা সভাপতি জানান এটা চ্যালেঞ্জের প্রশ্ন নয় চ্যালেঞ্জ করেই বা কি হবে হুমায়ুন কবির একটা বিতর্কিত ব্যক্তিত্ব সব সময় এই ধরনের কথাবার্তা বলেন এবং নিশ্চয়ই রাজ্য নেতৃত্বে কোন আভাস পেয়েছে বা কিছু হয়েছে কিভাবে কি হয়েছে সেটা ওর বিষয়ে ওকে জিজ্ঞেস করুন এ ব্যাপারে আমার কোন বক্তব্য নাই।

সাংবাদিকরা আরো প্রশ্ন করে আবু তাহের খান কে হুমায়ুন কবির আগে জানিয়েছিল তিনি যেই বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক সেখানকার ব্লক সভাপতি দের মানবেন না এই প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে আবু তাহের খান জানান আগেই বলেছি উনি একটি বিতর্কিত ব্যক্তিত্ব উনি প্রথম থেকেই যেভাবে ব্যাটিং করতে চাইছেন একটা শৃঙ্খলা পরায়ন দলে এসে এই ধরনে বলা উচিত নয় কারণ সকলেরই সম্মান আছে, দেখুন জেলা সভাপতির দায়িত্ব আগে অন্য জনের ছিল তারপরে আমি এই জেলা সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছি জেলা সভাপতির দায়িত্ব বা নতুন পদের দায়িত্ব পাওয়া মানে এই নয় যে যারা আগে ছিল তাদেরকে সরিয়ে দেবো যারা দলটাকে প্রতিষ্ঠা করেছে লালন করেছে পালন করেছে তাদেরকে একদিনে শেষ করে উড়িয়ে দেব এই মানসিকতা টা ঠিক নয় সে যেই হোক না কেন কারন তারাই তো দীর্ঘদিন এই দলে ছিল হুমায়ূন কবির যেই কথাটা বলছেন উনি তো এই দলে ছিলেন না উনি অন্য দলে ছিলেন বিজেপিতে ছিলেন,তিনি কংগ্রেস করেছেন তৃণমূল করেছেন বিজেপি করেছেন আবার ফের তৃণমূল করছেন ক’দিনের মধ্যেই যদি মনে করে আমূল পরিবর্তন করে দেবো তা ঠিক নয় তার মনে হচ্ছে তার হয়ে ভোট কেউ করেনি এ কেমন কথা বার্তা দলতো আছে একটা দলের ইনফ্রাস্ট্রাকচার আছে বিধায়ক তো দলের সমস্ত কিছু নয় সুতরাং সবাইকে সম্মান দিয়ে চলাই উচিত, যদি তোর মনে হয় তার হয়ে কেউ ভোট করেনি দলের সঙ্গে কথাবার্তা বলে আলোচনার মাধ্যমে সেটা মেটানো উচিত।

সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন হুমায়ুন কবির প্রথমে কংগ্রেস করতেন পরে তৃণমূল কংগ্রেস দলে এলেন তৃণমূল কংগ্রেস দল থেকে বহিষ্কৃত হয়ে বিজেপিতে গেলেন ফের তৃণমূলের ফিরলেন এই প্রশ্নের উত্তরে তাহের বাবু জানালেন দেখুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সুপ্রিমো তিনি তাকে দলে নিয়েছেন বাংলায় একটা কঠিন দুঃসময় ছিল বিজেপি নামক শক্তি যেমন সিউরে দাঁড়িয়েছিল বিজেপি যে ধরনের ভাষায় আক্রমণ করেছে তাকে প্রতিহত করতেই আমরা সব ধরনের মানুষকে এক ছাতার তলায় নিয়েছি এবং আমরা চাইছি আগামী দিনে দল শক্তিশালী হবে সংঘবদ্ধ হবে দল মজবুত হবে এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এর নেতৃত্বে আগামী দিনে ভারত বর্ষ দখল হবে এই আশা নিয়ে আমাদের নেতৃত্বে এগিয়ে চলেছে আগামী দিনে এই দলের সমস্ত শ্রেণীর মানুষ আসবে কারণ অন্য কোন দলেরতো আর পজিশন নাই সমস্ত মানুষ হাঁটবে তাদেরকে নিয়ে আমরা শক্ত হাতে দলকে আরো বেশি মজবুত করে পরিচালনা করব, যারা এদিক-ওদিক আছে তাদেরকে আমরা সেই ভাবে দল সংগঠনের মধ্যে রেখে আগামী দিনে পরিচালনা করব।

সাংবাদিকরা প্রশ্ন করে আপনি জেলা সভাপতি আপনার সঙ্গে রাজ্যর সম্পর্ক থাকাটা খুবই স্বাভাবিক কিন্তু সেখানে একজন নবনির্বাচিত বিধায়ক হুমায়ুন কবির বলছেন জেলা তৃণমূলের বড়সড় রদবদল হবে এ প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে আবু তাহের খান জানান সেটা তার ব্যাপার তাকে জিজ্ঞেস করুন এটা আমাকে না বলাই ভালো কারণ এসব কন্ট্রিবিউশন কথাবার্তার মধ্যে আমাদের না যাওয়াই ভালো যতটা সংযত থাকা যায় ততটাই ভালো। তবে হুমায়ুন কবিরের এই বক্তব্যের পর থেকে জেলা তৃণমূলের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments